চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্য | EAST

  • কৃত্রিম উপায়ে সূর্য তৈরীর দ্বিতীয় দেশ চীন।
  • বস্তুত এটি একটি পারমাণবিক ফিউশন যন্ত্র।
  • চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্যটি কিছু সময়ের জন্য আসল সূর্যের কোর অংশের থেকেও ১০গুণ বেশি তাপ তৈরী করতে পেরেছিল।
  • ২০০৬ সাল থেকেই এই নিয়ে কাজ করছিল চীন।
  • চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্যটির জন্য ২২৫০ কোটি মার্কিন ডলার খরচ হয়।

চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্য মূলত একটি পারমাণবিক ফিউশন যন্ত্র। যেখানে অনেক বড় বড় দেশ এখন ও করোনার সাথেই লড়ছে। সেখানে করোনা সৃষ্টি কারী দেশ চীন এবার তৈরী করে ফেলল তাদের নিজেদের আর্টিফিশিয়াল সূর্য EAST ( EXPERIMENTAL ADVANCED SUPERCONDUCTING TOKAMAK )। চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্য সম্পর্কে বিস্তারিত>

চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্যটির সাহায্যে ১০১ সেকেন্ড পর্যন্ত ১২০ মিলিয়ন ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপ উৎপন্ন করতে সক্ষম হয়েছে। 

তবে এই আর্টিফিশিয়াল সূর্যের রেকর্ডটি নতুন নয়, এর আগে আর্টিফিশিয়াল সূর্যের এই রেকর্ডটি সাউট কোরিয়ার নামে ছিল, সাল ২০২০KSTAR এর মাধ্যমে সাউট কোরিয়া ২০ সেকেন্ডের জন্য ১০০ মিলিয়ন ডিগ্রী সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপ উৎপন্ন করতে সক্ষম হয়েছিল।

সেখানে চাইনার এই এক্সপেরিমেন্টাল আর্টিফিশিয়াল সূর্যটি ২০ সেকেন্ডে জন্য ১৬০ মিলিয়ন ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা চুয়ে পেলেছিল, যেটা সূর্যের কোর টেম্পেরেচারের থেকে প্রায় ১০ গুন। 

এই আর্টিফিশিয়াল সূর্যটি NUCLEAR FUSION এর মাধ্যমে কাজ করে, আর্টিফিশিয়াল সূর্যটি চাইনার HEFEI এ অবস্থিত। এটি CLEAN ENERGY অর্থাৎ গ্রিনহাউস গ্যাস বিহীন শক্তির উৎস হিসেবে ব্যবহার করা হবে।

চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্যটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্ট করুন>

One thought on “চীনের আর্টিফিশিয়াল সূর্য | EAST

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *